হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট হ্যাক হওয়া থেকে কীভাবে রক্ষা করবেন?

সাম্প্রতি অনেকেরই হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট হ্যাক হচ্ছে এবং হোয়াটসঅ্যাপ এর তথ্য নিরাপত্তা নিয়ে উঠছে নানা প্রশ্ন। আপনি যদি আপনার হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্টে অ্যাক্সেস হারিয়ে ফেলেন তবে আপনার অ্যাকাউন্টটি পুনরুদ্ধার করতে নীচের বিষয়গুলো লক্ষ্য রাখুনঃ 

যদি আপনার সন্দেহ হয় যে অন্য কেউ আপনার হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্টটি ব্যবহার করছে, তবে আপনার পরিবার এবং সকল বন্ধুবান্ধবকে অবহিত করা উচিত কারণ, ঐ ব্যক্তি চ্যাট এবং গ্রুপগুলোতে আপনার ছদ্মবেশে থেকে অন্যান্য তথ্য হ্যাক করতে পারে। মনে রাখবেন, হোয়াটসঅ্যাপ এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপ্টযুক্ত এবং এর বার্তা বা মেসেজগুলো  আপনার ডিভাইসে সংরক্ষণ করা হয়, সুতরাং অন্য ডিভাইসে আপনার অ্যাকাউন্টে অ্যাক্সেস করা কেউ আপনার অতীতের কথোপকথনগুলি পড়তে পারবে না। হোয়াটসঅ্যাপ এর এস এম এস ভেরিফিকেশন কোডটি কখনোই অন্যকারো সাথে শেয়ার করবেন না, এমনকি আপনার আত্মীয়স্বজন কিংবা বন্ধু বান্ধবদের সাথেও না। 

এরপর আপনার ফোন নম্বর দিয়ে হোয়াটসঅ্যাপে সাইন ইন করুন এবং আপনি এসএমএসের মাধ্যমে প্রাপ্ত–সংখ্যার কোড প্রবেশ করে আপনার ফোন নম্বর যাচাই করুন। আপনি একবার এসএমএস কোডটি দিলেই আপনার অ্যাকাউন্টটি অন্য কেউ অন্য ডিভাইস থেকে ব্যবহার করে থাকলে তা লগ আউট হয়ে যায়। 

আপনাকে টু ফ্যাক্টর ভেরিফিকেশন কোড সরবরাহ করতে বলা হতে পারে। আপনার এই কোডটি যদি জানা না থাকে তবে, আপনার অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করা ব্যক্তি হয়ত তা যাচাইকরণ সক্ষম হয়েছে। টু ফ্যাক্টর ভেরিফিকেশন কোড  ব্যতীত সাইন ইন করার জন্য আপনাকে অবশ্যই ৭ দিন অপেক্ষা করতে হবে। আপনি এই যাচাইকরণ কোডটি জানেন কিনা তা বিবেচনা না করেই, আপনি 6-সংখ্যার এসএমএস কোডটি প্রবেশ করার পরে অন্য ব্যক্তিটি আপনার অ্যাকাউন্ট থেকে লগ আউট হয়েছিল। আপনার যদি নিজের অ্যাকাউন্টে অ্যাক্সেস থাকে এবং সন্দেহ হয় যে কেউ আপনার অ্যাকাউন্টটি হোয়াটসঅ্যাপ ওয়েব / ডেস্কটপ এর মাধ্যমে ব্যবহার করছে, আমরা আপনার ফোন থেকে সমস্ত কম্পিউটার লগ আউট করে ফেলবেন। আপনার অ্যাকাউন্ট সুরক্ষিত রাখার জন্য, কেউ আপনার ফোন নম্বর দিয়ে একটি হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট খোলার করার চেষ্টা করলে হোয়াটসঅ্যাপ আপনাকে জানাবে।  

হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট সিকিউরিটি এর জন্য কিছু টিপসঃ 

  • আপনার টু ফ্যাক্টর ভেরিফিকেশন কোড এবং রেজিস্ট্রেশন কোড অন্য কারোর সাথে শেয়ার করবেন না
  • টু ফ্যাক্টর ভেরিফিকেশন চালু রাখুন এবং যদি আপনার পিন ভুলে যান তবে একটি ইমেইল দিয়ে রাখুন 
  • একটি ডিভাইস কোড সিলেক্ট করুন
  • আপনার মোবাইল কার কাছে আছে বা কে আক্সেস পাচ্ছে তা খেয়াল করুন। কারও কাছে যদি আপনার ফোনে দৈহিক অ্যাক্সেস থাকে তবে তারা আপনার অনুমতি ছাড়াই আপনার হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্টটি ব্যবহার করতে পারে।
  • আপনি রিকুয়েস্ট করা ছাড়াই যদি টু ফ্যাক্টর ভেরিফিকেশন কোড এর কোন ইমেইল পান, তবে লিঙ্কে ক্লিক করবেন না। কেউ হোয়াটসঅ্যাপে আপনার ফোন নম্বর অ্যাক্সেস করার চেষ্টা করতে পারে।

 

 

 

 

 

Know More

ফেসবুক ক্লোনিং যেভাবে রোধ করবেনঃফেসবুক ক্লোনিং যেভাবে রোধ করবেনঃ

ফেসবুক ক্লোনিং একটি সোশ্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং টেকনিক যার মাধ্যমে স্ক্যামাররা যেকোনো পাবলিক ফেসবুক প্রোফাইল এর তথ্য নিয়ে ফেইক প্রোফাইল তৈরি করে। হ্যাক না করেও এই পদ্ধতিতে ফেইক প্রোফাইল বানানো সম্ভব। এভাবে

ইন্টারনেটের নিরাপদ ব্যবহার ৩ : ব্রাউজিং ও ডাউনলোডইন্টারনেটের নিরাপদ ব্যবহার ৩ : ব্রাউজিং ও ডাউনলোড

ইন্টারনেটের সুফল অনেক। প্রতিদিন আমরা অনেক সাইট ভিজিট করি,অনেক কনটেন্ট দেখি আর এই সুযোগে দুর্বৃত্তরা নানা ভাবে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের প্রতারণা করে বিভিন্ন প্রকার ক্ষতিসাধন করছে। কেউ কেউ গুরুত্বপূর্ণ ফাইল মুছে

নিরাপদ ফেসবুক ব্যবহারনিরাপদ ফেসবুক ব্যবহার

প্রতিনিয়ত ফেসবুকের জনপ্রিয়তা যেমন বাড়ছে, সেই সাথে বিভিন্ন একাউন্টে ব্যক্তিগত তথ্য থাকা এবং সামাজিক বা ব্যবসায়িক যোগাযোগ থাকার দরুণ একাউন্টগুলোতে অনেক ক্ষেত্রেই হ্যাকারদের লক্ষ্যে পরিণত হচ্ছে। আর তাই ফেসবুক একাউন্টটিকে